1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
কেএমপি’র অভিযানে ৬০০ গ্রাম গাঁজা ও ২০ পিস ইয়াবা সহ  গ্রেফতার ৫ বজ্রপাতে কয়রার শিশুসহ নিহত ২ মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কুল খুলবে ২৬ জুন বাগেরহাটে ৬০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করেন সংসদ সদস্য প্রতিনিধি লোহাগড়ায় নিরাপদ সড়কের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত চামড়া পাচার রোধে শার্শা সীমান্তে বিজিবি টহল জোরদার শার্শায় ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানচালক নিহত, ট্রাক ও ড্রাইভার আটক শার্শার পল্লীতে ককটেল বিস্ফোরণে দুই শিশু আহত কেশবপুরে এস,এস,সি-৯১ ব্যাচের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানটি মিলনমেলায় পরিণত হয় কেন্দ্রীয় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সহ-সভাপতি হলেন পাইকগাছার লিটন খুলনায় ঈদের জামাত সকাল ৮টায় কোরবানির পশু হাট শেষ মুহূর্তে জমে উঠলেও-বিপাকে খামারিরা পাইকগাছায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কেশবপুরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টায় গ্রেফতার-১ ঝিকরগাছায় গরিবের ঈদের চাউল উধাও:বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ নড়াইলে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোর নিহত শার্শায় এবার ঈদের কেনাকাটা জমে ওঠেনি পবিত্র হজ্জ আজ নড়াইলে ঘেরের পাড় থেকে কিশোরের মরদেহ উদ্ধার এবি পার্টিতে নবাগতদের সংবর্ধনা

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধিতে আবারও শঙ্কায় গদখালীর ফুলচাষিরা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৪১৯ বার শেয়ার হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি// দুই বছর করোনার প্রকোপ,ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এবং দুই দফা অসময়ের বৃষ্টির ক্ষত কাটিয়ে যখন নতুন করে স্বপ্ন বুনছেন ঝিকরগাছার গদখালীর ফুলচাষিরা ।তখন ওমিক্রন ফুলচাষিদের আবারও শঙ্কায় ফেলেছে ।

বিজয় দিবসে চাষিরা কিছুটা দাম পেলেও ওমিক্রন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দাম কমতে শুরু করেছে । ফুলের রাজধানী খ্যাত গদখালীর ফুলচাষিরা সাধারণত বিজয় দিবস , বসন্তবরণ , বিশ্ব ভালোবাসা দিবস , আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস , মহান শহিদ দিবস এবং স্বাধীনতা দিবসে ফুল বিক্রির বিষয়টি লক্ষ্য করে এর চাষ করেন । এ মৌসুমেও সে অনুযায়ী দুই বছরের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে চাষ শুরু করেন চাষিরা ।

গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে কাঙ্ক্ষিত দামও পেয়েছিলেন তারা । কিন্তু করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট ওমিক্রন শঙ্কায় ফেলেছে তাদের ।

গদখালী ফুলের বাজারে গিয়ে দেখা যায় , ওমিক্রন প্রকোপের আগে ফুল যে দামে বিক্রি হয়েছিল , বর্তমান তা নেমে এসেছে ৪ ভাগের ১ ভাগে । বর্তমানে বাজারে প্রতি হাজার গাঁদাফুল বিক্রি হচ্ছে ২০০-২৫০ টাকা , যা গত সপ্তাহে ছিল ৮০০ থেকে ৯০০ টাকায় । গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ২ টাকা , যা আগে বিক্রি হয়েছে ৪ থেকে ৬ টাকায় । রজনীগন্ধা প্রতিটি বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৫ থেকে ৬ টাকায় , যা আগে ছিল ৭ থেকে ১০ টাকায় । রঙিন গ্লাডিওলাস প্রতিটি রঙভেদে বিক্রি হচ্ছে ৬ থেকে ৯ টাকায় , যা আগে ছিল ৯ থেকে ১৫ টাকায় । জারবেরা বিক্রি হচ্ছে ৬ থেকে ৮ টাকায় , যা আগে ছিল ৮ থেকে ১৫ টাকায় । কামিনীপাতা বিক্রি হচ্ছে প্রতি আঁটি ৩০ থেকে ৪০ টাকায় , যা আগে ছিল ৫০ থেকে ৬০ টাকা । জিপসির আঁটি বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকায় , যা আগে বিক্রি হতো ৩০ থেকে ৪৫ টাকায় । ফুল ব্যবসায়ী সেলিম রেজা বলেন , ওমিক্রন বাড়ায় সরকারি নির্দেশনার কারণে সামাজিক অনুষ্ঠান কমে গেছে । এতে ফুলের চাহিদা কমেছে , দামও কম । হাড়িয়া মাঠে একটি শেডে আট ধরনের জারবেরা ফুল তারার মতো ফুটে রয়েছে ।

এই ক্ষেত পরিচর্যা করছিলেন শাহজান আলী । আগামী তিনটি দিবসের আগে এসব ফুল তুলবেন তিনি । শাহজান আলী বলেন , ‘ ওমিক্রন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ফুলের দাম কমে গেছে । তাই ফুল তোলার মতো হলেও ওঠাচ্ছি না । যদি দাম ভালো পাই , তাহলে এই শেডের জারবেরা ফুল দুই লাখ টাকায় বিক্রি হবে । আর যে দুই বিঘায় গ্লাডিওলাস ও এক বিঘা জমিতে গাঁদা ফুল রয়েছে , সব মিলিয়ে চার থেকে পাঁচ লাখ টাকার ফুল বিক্রি করতে পারবো । ‘ ফুলকানন পানিসারা মাঠে দেখা যায় , ফুলচাষি আজিজুর রহমান সরদার জারবেরা খেতের আগাছা ওঠাচ্ছেন । তাঁর এক বিঘা জারবেরা , চন্দ্রমল্লিকা , চায়না গোলাপ , ১০ কাঠা গ্লাডিওলাস ও ১৫ কাঠা জমিতে গাঁদা ফুল রয়েছে । এই ফুলচাষি বলেন , করোনাভাইরাসের প্রকোপ , ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এবং দুই দফা অসময়ের বৃষ্টির ক্ষত কাটিয়ে গত বিজয় দিবসে দেড় লাখ টাকার ফুল বিক্রি করেছি । আশা করছি আগামী তিনটি দিবসে অন্তত চার লাখ টাকার ফুল বিক্রি করতে পারবো । তবে ওমিক্রন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ফুলের দাম কমে গেছে । যদি দাম আরও পড়ে যায় এবং লকডাউন শুরু হয় , তাহলে দায় – দেনার কারণে চরম আর্থিক সংকটে পড়তে হবে । আরও কথা হয় ফুলচাষি কুলিয়া গ্রামের শের আলী , হাড়িয়ার মোমেনা খাতুন ও ইমামুল হোসেন , বল্লার শামীম রেজা , রাশিদুল ইসলাম , আজিজুর রহমানের সঙ্গে । ইমামুল হোসেন বলেন , করোনাকালীন খেতে লাখ লাখ টাকার ফুল থাকতেও শেডের টিন বিক্রি করে সংসার চালাতে হয়েছে । যদি ওমিক্রনের প্রকোপে আবার সে রকম অবস্থা হয় , তাহলে পথে বসতে হবে । ঝিকরগাছার গদখালী অঞ্চলে ১ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে ১১ প্রকারের ফুল বাণিজ্যিকভাবে চাষ হয় । পরীক্ষামূলকভাবে এক্সট্রোমা ও লিলিয়ামের চাষ শুরু হয়েছে । এই এলাকার ৬০০ পরিবারের দেড় লাখ মানুষ ফুল চাষের সঙ্গে জড়িত । এই অঞ্চলে প্রতিবছর সাড়ে তিনশ ’ কোটি টাকার ফুল বেচাকেনা হয় । দেশে উৎপাদিত ফুলের ৭০ ভাগ এই অঞ্চলে হয় ।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।