1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
দিঘলিয়ায় মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে ৫, ভাইস চেয়ারম্যান ৭ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ৩ জন প্রার্থী সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি,গণধোলাইয়ের শিকার চা বিক্রেতা আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শার্শায় ১১ জনের মনোনয়ন দাখিল শ্যামনগরের সিসিডিবির আয়োজনে গৃহপালিত পশু পাখি পালনে কর্মশালা দ্বিতীয় বিয়ের চার দিন পর খুন হলেন বৃদ্ধ; ছেলেরা পলাতক নড়াইলে পানিতে ডুবে আপন ভাই বোনের মৃত্যু তৈয়বিয়া সাবেক ছাত্র পর্ষদের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত নড়াইল-২ আসনের সাবেক সাংসদ এ্যাড.মকবুল হোসেনের মৃত্যুতে নড়াইলে শোকের ছায়া বোরো মৌসুমে ধান চাল সংগ্রহের মূল্য নির্ধারণ বেনাপোল ইমিগ্রেশনের কাস্টমস সুপারের হাতে সাংবাদিক লাঞ্ছিত বাগেরহাটে মাদক সেবনের অভিযোগে ১১জনকে গ্রেপ্তার কেশবপুরে আমাদের ভূমিকা শীর্ষক সাহিত্য আসর ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তীব্র তাপদাহে অতিষ্ঠ মোংলার জনজীবন ঝিকরগাছার পল্লীতে মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে থানায় অভিযোগ শ্যামনগরে তরমুজের বাম্পার ফলন; কৃষকের মুখে হাসি ঝিনাইদহে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে এক ব্যক্তির মৃত্যু আগামীকাল খুলনায় আসছেন চরমোনাই পীর কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দ্বিতীয় স্ত্রীর আত্মহত্যা সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে মৌয়াল নিহত কেশবপুরে ৭১-এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারণ সভা

লক্ষ্মীপুর জেলাতে সীমানা জটিলতায় এক যুগ ধরে হয়না নির্বাচন,১১ বছর আগে নির্বাচিতরাই চালাচ্ছেন পরিষদ

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৪৬৯ বার শেয়ার হয়েছে

সোহেল হোসেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি// নির্বাচন হয়েছিল ২০১১ সালে। এরপর আর কোনো নির্বাচন হয়নি।দীর্ঘ ১১ বছর আগে নির্বাচিত হয়েই ইউনিয়ন পরিষদ চালাচ্ছেন চেয়ারম্যানরা। প্রায় এক যুগ ধরে একই চেয়ারে বসে তাদের কর্ম সম্পাদন করে চলেছেন। তবে সীমানা জটিলতার কারণকে দায়ী করছেন চেয়ারম্যানরা।

জানা গেছে, সীমানাসংক্রান্ত জটিলতার মামলার কারণে লক্ষ্মীপুরের আটটি ইউনিয়ন পরিষদ ১১ বছর ও একটিতে ছয় বছর ধরে নির্বাচন হচ্ছে না। এসব ইউনিয়ন পরিষদে দায়িত্ব পালন করছেন আগের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানেরা। দীর্ঘ সময়ে নির্বাচন না হওয়ায় এসব ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা নাগরিকদের সঙ্গে স্বেচ্ছাচারী আচরণ করছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের তথ্যমতে, নির্বাচন না হওয়া ইউনিয়ন পরিষদগুলোর মধ্যে রয়েছে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়ন পরিষদ, দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ, দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদ, বাংগাখাঁ ইউনিয়ন পরিষদ, লাহারকান্দি ও তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ এবং কমলনগরের তিন ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে রয়েছে সাহেবের হাট, চরকালকিনি ও পাটওয়ারী হাট ইউনিয়ন পরিষদ।

সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জে ২০১৬ সালে সর্বশেষ নির্বাচন হয়। এছাড়া অন্য আটটি ইউপিতে সর্বশেষ নির্বাচন হয় ২০১১ সালে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, দীর্ঘ সময়ে ভোট না হওয়ায় এসব ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা একক আধিপত্য বিস্তার করেছেন। আবার কোনোটিতে জনপ্রতিনিধির মৃত্যুর পর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থাকলেও ঠিকমতো পরিষদে আসেন না। ফলে এলাকার উন্নয়ন কার্যক্রম থেকে শুরু করে সব ধরনের কর্মকাণ্ডে পদে পদে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এসব ইউনিয়নের কয়েক লাখ নাগরিককে।

৩নং দালাল বাজার ইউপির বাসিন্দা আবদুর রশিদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে চেয়ারম্যান ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানরা দায়িত্ব পালন করায় তাদের জবাবদিহির সুযোগ কম থাকছে। ফলে এসব এলাকার নাগরিকরা প্রত্যাশিত সেবা পাচ্ছে না। হয়রানির শিকার হন সেবা গ্রহীতারা।

৬নং বাংগাখাঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেন, সীমানা জটিলতার কারণে নির্বাচন বন্ধ রয়েছে। তবে এতে নাগরিক সেবা বিঘ্নিত হচ্ছে না। সব সময় নাগরিকদের সেবা দেওয়ার জন্য নিয়োজিত রয়েছি।

৪নং চররুহিতা ইউপির বাসিন্দা মো. ফারুক বলেন, এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন তো হচ্ছেই না, এমনকি সন্তানদের জন্মনিবন্ধন নিতেও ভোগান্তি পোহাতে হয়। বিভিন্ন উৎসব কিংবা দুর্যোগের সময় অন্য ইউনিয়নের মতো সরকারি সহায়তা থেকেও আমরা বঞ্চিত হই।

দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সোহেল বলেন, আমরাও নির্বাচন চাই। নির্বাচন হলে কোনো সমস্যা নেই। তবে সীমানা জটিলতায় নির্বাচন বন্ধ রয়েছে। এখানে আমার কোনো হাত নেই।

৪নং চররুহিতা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কবির পাটওয়ারী বলেন, দীর্ঘ সময় নির্বাচন না হওয়ায় আমরা নিজেরাও বিরক্তবোধ করছি। সীমানা জটিলতার মামলা নিষ্পত্তি না হলে নির্বাচন হওয়া অসম্ভব। তবে নির্বাচন না হলেও কোনো মানুষ ভোগান্তিতে নেই।

কোনো কোনো স্থানে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা তাদের চেয়ার ধরে রাখতে মামলা করে জটিলতা বাড়িয়েছেন। এজন্য সরকারকেই মামলা নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিতে হবে। নির্বাচন না হওয়ায় নাগরিকরা অধিকার বঞ্চিত হচ্ছেন।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।