1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১১:৪১ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
এবি পার্টিতে নবাগতদের সংবর্ধনা পাইকগাছায় কপোতাক্ষী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগে অনিয়ম বটিয়াঘাটায় বিধবা মহিলাকে উচ্ছেদ ও জীবন নাশের হুমকি গাবুরায় ঘুর্ণিঝড় রি‌মেলে ক্ষ‌তিগ্রস্ত ৫০০ প‌রিবা‌রে ব্রতীর খাদ‌্য সহায়তা উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের মতবিনিময় কেশবপুরে নদ-নদীর পানির প্রবাহ সৃষ্টির দাবিতে স্মারকলিপি রেমাল ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ দলিত পরিবারের পাশে হোপ আউটরিস্ট মিনিস্ট্রি ও প্রজ্ঞা ফাউন্ডেশন নড়াইলে অপহরণের পর হত্যা,৩ জনের ফাঁসির আদেশ কেশবপুরে শিশুদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ মঙ্গলকোট-বিদ্যানন্দকাটি ২৩তম অষ্ট প্রহরব্যাপী মহানামযজ্ঞ অনুষ্ঠান সমাপ্ত  সাতক্ষীরায় ঘের ব্যবসায়ীর ঘের হুমকির মুখে সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী কমিটের নামে মিথ্যা অপপ্রচার করায় খুলনা অনলাইন প্রেসক্লাব এর উদ্বেগ টানা ২০ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলনায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে যুবক নিহতের ঘটনায় মানববন্ধন যশোর জেলার শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হলেন শার্শা থানার শেখ মনিরুজ্জামান ঈদুল আযহায় বাচ্চাদের জন্য নিরাপত্তা টিপস কেএমপির অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত লোহাগড়ায় সমবায় সমিতির উদ্যোগে দিনব্যাপী ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত ঝিকরগাছায় ধর্ষনের ঘটনায় স্থানীয় ভাবে মিমাংসার চেষ্টা : ধর্ষক মিজানুর আটক লোহাগড়ায় মাদক বিরোধী সেমিনার অনুষ্ঠিত

নড়াইলের সেই কলেজ খুলেছে, যাননি লাঞ্ছিত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার

  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৪ জুলাই, ২০২২
  • ১৮৩ বার শেয়ার হয়েছে

মোঃ আলমগীর হোসেন,লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি //নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজ ঈদের ছুটির পর আজ রোববার খুলেছে। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাস কলেজে যাননি। শিক্ষার্থীরাও কলেজে যাননি।

তবে প্রশাসনের কর্মকর্তারা এসে কলেজ শিক্ষক ও কর্মচারীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এ দিকে অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় করা মামলায় পুলিশ আরেক ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে।

কলেজশিক্ষক ও কর্মচারীরা বলেন,কলেজে প্রায় সাড়ে ৩০০ শিক্ষার্থী আছেন। চালু আছে এইচএসসি ও স্নাতক শ্রেণি। আজ কলেজে খুললেও কোনো শিক্ষার্থী কলেজে যাননি। যাননি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসও।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, নড়াইল সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. সাজেদুল ইসলাম, মির্জাপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. সাইফুল ইসলাম আজ কলেজে এসে তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

এডিএম জুবায়ের হোসেন চৌধুরী জানান, কলেজ আজ রোববার খুলেছে। হয়তো শিক্ষার্থীরা জানতে পারেননি, তাই আসেননি। শিক্ষক-কর্মচারীদের সঙ্গে কলেজের সার্বিক পরিবেশ নিয়ে বৈঠক হয়েছে।

কীভাবে আগের পরিবেশ ফিরিয়ে আনা যায়,তা নিয়ে কথা হয়েছে। আগামীকাল সোমবার থেকে শুধু দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে অন্য ক্লাস শুরু হবে। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাস কয়েক দিন পর কলেজে যাবেন। শিক্ষার্থীদের ফোন করে বা ব্যক্তিগত যোগাযোগ করে কলেজে আনা হবে।

পুলিশ জানায়,শিক্ষককে অপদস্ত করার ঘটনায় আরেক ছাত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বয়স ১৭ বছর। সে কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। ওই ছাত্র অধ্যক্ষের মোটরসাইকেলসহ তিন শিক্ষকের মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পোড়ানোর সঙ্গে জড়িত। গত শনিবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই অভিযোগে গত শুক্রবার কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র রায়হান শেখকে (১৯) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৯জনকে গ্রেপ্তার করা হলো।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার পরিদর্শক–তদন্ত (ওসির দায়িত্বে) মো. মাহমুদুর রহমান জানান, ভিডিও ফুটেজ দেখে সর্বশেষ একাদশ শ্রেণির ওই ছাত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে আজ দুপুরে নড়াইল শিশু আদালতে সোপর্দ করা হয়। আর রায়হানের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ রোববার নড়াইলের আমলি আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদা এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত ১৮ জুন নড়াইল সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটে। আগের দিন ১৭ জুন ওই কলেজের একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী নিজের ফেসবুকে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির বহিষ্কৃত মুখপাত্র নূপুর শর্মার পক্ষে ছবিসহ একটি পোস্ট দেয়। এ নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হলে অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাস ওই শিক্ষার্থীর বাবাকে ডাকেন। আলোচনা করেন কলেজের শিক্ষকদের সঙ্গে।

আলোচনায় নেওয়া সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী,কলেজ ক্যাম্পাসে পুলিশ ডেকে অভিযুক্ত শিক্ষার্থীকে তাদের কাছে সোপর্দ করা হয়। পুলিশের সদস্যরা ওই শিক্ষার্থীকে ক্যাম্পাস থেকে নিয়ে যেতে চাইলে উত্তেজিত ছাত্র ও বহিরাগত কয়েকজন বাধা দেন। তখন পুলিশ সুপার (এসপি) ও জেলা প্রশাসককে (ডিসি) বিষয়টি জানানো হয়। বিকেল চারটার দিকে শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাস এবং ওই শিক্ষার্থীকে কলেজের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে বের করা হয়। নিচতলার কলাপসিবল গেটের সামনে আনার পর তাঁদের গলায় জুতার মালা পরানো হয়।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।