1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
সংসদ ভবন এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী খুন মোংলায় আচরণবিধি লঙ্ঘনে তিন প্রার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা বটিয়াঘাটা উপজেলায় পানিতে ডুবে নবম শ্রেণীর ছাত্রের মৃত্যু কেশবপুরে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আলমগীরের স্ত্রী ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ গ্রেফতার  ঢাকার ধোলাইখালে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট  গাজীরহাটে সাংবাদিকের বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি বাগেরহাটে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, প্রতিবাদ করায় পিতাসহ ৪ জন আহত খুলনা অনলাইন প্রেসক্লাব এর বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত ধান নি‌য়ে বা‌ড়ি ফেরা হ‌লো না কয়রার দুই শ্রমি‌কের তালায় ট্রাক উল্টে খাদে; নিহত ২, আহত ১০ ২১ মে মঙ্গলবার ১৫৭ উপজেলায় সাধারণ ছুটি ঘোষনা ১৭ মে থেকে ৩ দিনের জন্য বেনাপোল স্থলবন্দর বন্ধ যে পরিকল্পনায় খুন হন লোহাগড়ার চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন ভাড়াটিয়া শুটার  লোহাগড়ায় ইস্টার্ন ব্যাংক পিএলসি’র গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত  বিশ্ব সন্ত্রাসী ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রেরণের ব্যবস্থা করতে হবে- মাওঃ আব্দুল আউয়াল  মানববন্ধন-সমাবেশ দুর্যোগের ঝুঁকিতে থাকা উপকূলের উন্নয়নে বিশেষ বরাদ্দের দাবী রামপালে লায়ন ড শেখ ফরিদুল ইসলামের উদ্যোগে ১৫ তম ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা শিবির অনুষ্ঠিত কেশবপুরের তৃষান বসু দিব্য জাতীয় পর্যায়েও শ্রেষ্ঠ হতে চায় দিঘলিয়ায় নির্বাচনী মাঠে ব্যতিক্রমী প্রচার-প্রচারণা আকৃষ্ট করল ভোটারদের খুলনায় তৃতীয় শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মাদ্রাসা সুপার গ্রেপ্তার

নড়াইলে গাঁজার প্যাকেট দেখাতেই মুখ থেঁতলে দিলেন স্বামী-শাশুড়ি

  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৭৩ বার শেয়ার হয়েছে

মোঃ আলমগীর হোসেন,লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি // নড়াইল সদরের পলইডাঙ্গা গ্রামের এ বাসিন্দা একজন মাদকাসক্ত আশিক খাঁন। বিয়ে করেছেন অবসরপ্রাপ্ত এক পুলিশ সদস্যের মেয়েকে।প্রতিনিয়ত স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য অত্যাচারও করতেন।গত বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে স্বামীর গাঁজার প্যাকেট শ্বশুরবাড়ির লোকজনকেই দেখাতেই হিংস্রতার শিকার হন তিনি।

ভুক্তভোগী বর্তমানে ভর্তি আছেন নড়াইল সদর হাসপাতালে।
ভুক্তভোগীর নাম সুমাইয়া ইসলাম (২০)। বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাপক অত্যাচারের শিকার হন তিনি। তার স্বামী আশিক, শাশুড়ি শেফালী বেগম ও ননদ সামিরা তাকে মারধর করেন। থেঁতলে দেন মুখ। আঘাত পেয়েছেন মাথা ও পায়ে। ঘটনার পর থেকে স্বামী আশিক খান পলাতক রয়েছেন।

ভুক্তভোগীর বাবা অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য কাজী নজরুল ইসলাম। বসবাস করেন লোহাগড়া উপজেলার শামুকখোলা গ্রামে। মেয়ের অত্যাচারের ঘটনায় তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে এখনও অভিযোগ করেননি তিনি।

জানা গেছে, ২০২১ সালে পলইডাঙ্গা গ্রামের আশিক খানের সঙ্গে সুমাইয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর মোটরসাইকেল কিনে দিতে সুমাইয়াকে বলেন তিনি। কিন্তু সেটি কেন দেওয়ার মতো টাকা হাতে নেই বলে স্বামীকে জানান সুমাইয়া। নাছোড়বান্দা আশিক তাকে তার বাবা পেনশনের টাকায় মোটরসাইকেল কিনে দিতে বলেন। বিষয়টি নিয়ে দুজনের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা হয়। এভাবে কয়দিন চলার পর সুমাইয়া জানতে পারেন তার স্বামী মাদকাসক্ত। বিষয়টি নিজের পরিবারের কাছে জানান তিনি। এ কথা জানতে পেরে সুমাইয়াকে নির্যাতন শুরু করে আশিক ও তার পরিবার। নানা অজুহাতে তাকে নির্যাতন করা হতো বলে জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার সকালে আশিকের এক পুটলি গাঁজা খুঁজে পান সুমাইয়া। পরে তিনি এটি তার শাশুড়ি ও ননদকে দেখান। এ সময় তারা তাকে মারধর করেন। রাতে আশিক বাড়ি এসে বিষয়টি জানতে পেরে স্ত্রীকে আরেকদফা মারধর করেন। সুমাইয়ার শাশুড়ি শেফালী বেগম ও ননদ সামিরাও এসময় তাকে আবার মারধর করেন। রড় দিয়ে তাকে আঘাত করা হয়। এক পর্যায়ে সুমাইয়ার মুখ থেঁতলে দেন আশিক। এ খবর জানতে পেরে সুমাইয়ার ভাইয়েরা তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মারধরের কারণে সুমাইয়ার মুখের কয়েকটি দাঁত নড়ে গেছে। ঠোটে অন্তত ১০টি সেলাই লেগেছে। মাথা ও পায়ে গভীর আঘাত লেগেছে বলেও তারা জানান। পরে এ তথ্যগুলো গণমাধ্যমকে জানান সুমাইয়ার পরিবার।

সুমাইয়ার ভাই রমজান বলেন,এক বছর হয় আমরা বোনকে বিয়ে দিয়েছি। এর মধ্যে ৯ মাসই তাকে নানা অজুহাতে মারধর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কয়েকদফা গ্রাম্য সালিসও হয়েছে। কিন্তু, তারপরও তারা থামছিল না। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার আমার বোনকে মেরে মুখ থেঁতলে দেওয়া হয়েছে।
নড়াইল সড়র হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. পার্থ সারথি রায় বলেন, ভুক্তভোগীর মুখে ও ঠোট মারাত্মক জখম হয়েছে। মাথায় আঘাতের চিহ্ন আছে। ইন্টারনাল হেমারেজ আছে কিনা সেটি জানতে সিটিস্ক্যানসহ অন্যান্য পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে পেলে অবস্থার বিবরণ দেওয়া যাবে।

স্থানীয় একটি চায়না ফার্মে দোভাষীর কাজ করেন আশিক। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক। তার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে কিনা জানতে চাইলে সুমাইয়ার ভাই জানান, পরিবারের সব সদস্যদের সঙ্গে আলোচনার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।