1. info@www.khulnarkhobor.com : admin :
  2. khulnarkhobor24@gmail.com : Khulnar Khobor : Khulnar Khobor
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
★খুলনার খবরে আপনাদের স্বাগতম★এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি★আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।০১৯২৫-৫৩৬৩৪০★আপনাদের কাছে কোন তথ্য থাকলে আমাদের জানাতে পারেন।যোগাযোগের ঠিকানা, ৪৭,আপার যশোর রোড, খুলনা।ই-মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।মোবাঃ ০১৭২১-৪২৮১৩৫, ০১৭১০-২৪০৭৮৫।★আমাদের  প্রতিনিধি হতে চাইলে যোগাযোগ করুন : ০১৯২৫-৫৩৬৩৪০/০১৭১০-২৪০৭৮৫।★আকাশ ২৬টি HD চ্যানেলসহ মোট ৯০টি চ্যানেল মাত্র টাকা ৩০০/মাস "আকাশ" কিনতে যোগাযোগ করুন।৪৭,আপার যশোর রোড,খুলনা।মোবাঃ০১৭২১-৪২৮১৩৫,০১৯২৫-৫৩৬৩৪০,০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৯৭০-২৪০৭৮৫।লুকাস,  ভলভো,  হ্যামকো,  সাইফপাওয়ার ব্যাটারিসহ সকল প্রকার ব্যাটারি পাইকারি ও খুচরা মুল্যে পাওয়া যায়।সকল প্রকার এসি ও সোলার প্যানেল পাওয়া যায়।এম,ইব্রাহিম এন্ড কোং,৪৬ আপার যশোর রোড, খুলনা।মোবাইল: ০১৭১০-২৪০৭৮৫/০১৯৭০-২৪০৭৮৫★রিক্সা ও ভ্যানের ১নং চায়না ব্যাটারির একমাত্র পাইকারি বিক্রয় প্রতিষ্ঠান এম,ইব্রাহিম এন্ড সন্স।৪৭,আপার যশোর রোড,(সঙ্গিতার মোড়) খুলনা।মোবাঃ ০১৭১০-২৪০৭৮৫/ ০১৯৭০-২৪০৭৮৫/০১৭২১-৪২৮১৩৫।

দেয়াড়া-দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাটে পাকা ঘাট সংস্কারে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্ণীতির অভিযোগ

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪৪ বার পড়া হয়েছে

এস.এম.শামীম দিঘলিয়া,( খুলনা) প্রতিনিধি//
দেয়াড়া-দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাটের পাকা ঘাট সংস্কারে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে বড় ধরনের অনিয়ম ও দুর্ণীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়, দেয়াড়া-দৌলতপুর খেয়াঘাটের পূর্ব পারে ও পশ্চিম পারে দুইটি পাকাঘাটই ভেঙ্গে ও স্টেপগুলো সমান হয়ে যাওয়াসহ পূর্ব ঘাটে ট্রলার থামাতে না পারার কারণে পারাপার যাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়েছে। যে কারণে খুলনা জেলা পরিষদ কর্তৃপক্ষ সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন দেয়াড়া-দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাট এবং দুই পারের পাকা ঘাট মেরামতের জন্য ৫ লাখ টাকা অর্থ বরাদ্দ দিয়ে ঘাটটি মেরামতের জন্য টেন্ডার দেওয়া হয়। উক্ত খেয়াঘাটের মেরামতের কার্যাদেশ পায় খুলনার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স জামান ট্রেডার্স।

মেসার্স জামান ট্রেডার্স এর স্বত্বাধিকারী ঘাট মেরামতে চরম অনিয়ম ও দুর্ণীতির মাধমে বরাদ্দকৃত ৫ লাখ টাকা খরচ না করে যেনতেনভাবে ঘাটের পশ্চিম পারের পাকা জেটিটির সংস্কার কাজ করেছেন।

বিজ্ঞমহলের অভিমত ঘাটে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা খরচ করেছেন। বাকী টাকা জেলা পরিষদের প্রধান কর্মকর্তা মোঃ মাহবুব আলম ও ঠিকাদার (জামান ট্রেডার্সের মালিক) আত্নসাৎ করেছেন।
উক্ত ঠিকাদার কাজ শুরু করার আগে ঘাট বেশ কিছুদিন বন্ধ রাখে। পারাপারের ট্রলার বাজার ঘাটে পার হয়।

ঠিকাদার ঘাট সংস্কারে পাথরের পরিবর্তে ইটের নিম্নমানের খোয়া ব্যবহার করে। এবং সিমেন্ট কম ব্যবহার করার দরুণ ঢালাই শক্ত বা টেকসই হয়নি। যে কারণে ঘাটের ঢালাই কাজ ভেঙ্গে ভেঙ্গে পানিতে পড়ে গেছে। মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের পরিবর্তে নানুষের দুর্ভোগ আরো বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে। মালামাল নামানে আরো কষ্টের হয়ে দাঁড়িয়েছে। চাল, আটা, ময়দা, ডাল, গবাদী পশু ও হাস-মুরগীর খাবার পারাপারের সময় বস্তা ছিড়ে মালামাল বিনষ্ট হচ্ছে।

বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা যায়, খুলনা জেলা পরিষদ নিয়ন্ত্রিত এ ঘাট মেরামতের নামে লাখ লাখ টাকা বরাদ্দ এনে ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে যেনতেনভাবে কাজ করে বরাদ্দকৃত অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ পারাপার যাত্রীসহ ঘাট মাঝিদের। জনগণের পারাপারে দুর্ভোগ লাঘব করার নামে সরকারি অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ আশু তদন্তের দাবী সর্বস্তরের মানুষের।

এ ব্যাপারে কথা হয় দিঘলিয়ার ফরমাইশখানা গ্রামের শেখ ফরহাদ হোসেনের সাথে। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, ঘাটের ঠিকাদার ও খুলনা জেলা পরিষদের প্রধান কর্মকর্তা যোগসাজশে ভোগিজোগি কাজ করে সিংহভাগ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

এ ব্যাপারে কথা হয় দিঘলিয়ার সুগন্ধী গ্রামের তরুণ সমাজ সেবক মোল্লা মাকসুদুল ইসলামের সাথে।  তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে এ প্রতিবেদককে জানান, দেয়াড়া-দৌলতপুর খেয়াঘাটটি হয়েছে এ অঞ্চলের সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে একটা মহলের ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবকে পুঁজি করে রীতিমতো ফায়দা লুটার প্রতিযোগিতা।

দিঘলিয়া উপজেলা সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আলোর মিছিলের উপদেষ্টা দিঘলিয়া উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শেখ মমতাজ শিরীন ময়না ও আলোর মিছিলের বলিষ্ট নেতৃত্ব ও সাংবাদিক রবিউল ইসলাম রাজিব এ প্রতিবেদককে জানান, দেয়াড়া-দৌলতপুর বাজার খেয়াঘাট হয়েছে মুলতঃ  এ দিঘলিয়া জনপদের মানুষের জন্য মরণ ফাঁদ।

অপর দিকে এ ঘাটকে কেন্দ্র করে একটা মহলের হয়েছে ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে নিজের অর্থনৈতিক ভাগ্য পরিবর্তনের মাধ্যম। জেলা পরিষদ নির্বাচনের পরে আমরা সর্বমহলে স্মারকলিপি দিয়ে স্থানীয়ভাবে মানববন্ধনসহ দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলব।

এদিকে দেয়াড়া-দৌলতপুর খেয়াঘাটটির জনদুর্ভোগ ও সম্প্রতি ঠিকাদারের খেয়াঘাট সংস্কার নিয়ে কথা হয় দেয়াড়া গ্রামের বাসিন্দা, দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য, দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আতিকুল ইসলামের সাথে। তিনি দেয়াড়া-দৌলতপুর ঘাট সংস্কারে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির সত্যতা স্বীকার করে এ প্রতিবেদককে বলেন, মেসার্স জামান ট্রেডার্স খুলনা জেলা পরিষদ থেকে কাজের অনুমোদন ও অর্থ বরাদ্দ নিয়ে প্রথমে দিঘলিয়ার দেয়াড়া পারে পাকা ঘাটের দুই সাইডে ভেঙ্গে রড বের করে মাটির নিচ থেকে পিলার ঢালাই দেয়। দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুবুল আলম স্যারকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জানালে তিনি দেয়াড়া-দৌলতপুর খেয়াঘাট সংস্কার কাজের ঠিকাদারের কাছে স্টিমেট দেখাতে বললে উক্ত ঠিকাদার কাজের স্টিমেট না দেখিয়ে ঢালাই পিলারগুলো ভেঙ্গে ব্যবহৃত রড তুলে নিয়ে যায়।তিনি ক্ষমতসীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ মানুষের মুখে মুখে।

উল্লেখ্য দেয়াড়া-দৌলতপুর খেয়াঘাটের ঠিকাদার, মাঝি ও ইজারাদারদের বিরুদ্ধে পারাপার যাত্রীদের পারাপার ও নানা অনিয়মের অভিযোগ থাকলেও বর্তমান ঠিকাদার ও ইজারাদার মিলে পারপার যাত্রীদের দুর্ভোগ আরো বাড়িয়ে দিয়েছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.comজাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।নিবন্ধন নাম্বার:...।যেকোন তথ্য পাঠাতে আমাদের কাছে মেইল করুন।আপনাদের চারপাশে ঘটে যাওয়া সকল ঘটনার খবর আমাদের জানাতে পারেন।ই-মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।