1. info@www.khulnarkhobor.com : admin :
  2. khulnarkhobor24@gmail.com : Khulnar Khobor : Khulnar Khobor
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
★খুলনার খবরে আপনাদের স্বাগতম★এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি★আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।০১৯২৫-৫৩৬৩৪০★আপনাদের কাছে কোন তথ্য থাকলে আমাদের জানাতে পারেন।যোগাযোগের ঠিকানা, ৪৭,আপার যশোর রোড, খুলনা।ই-মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।মোবাঃ ০১৭২১-৪২৮১৩৫, ০১৭১০-২৪০৭৮৫।★আমাদের  প্রতিনিধি হতে চাইলে যোগাযোগ করুন : ০১৯২৫-৫৩৬৩৪০/০১৭১০-২৪০৭৮৫।লুকাস,  ভলভো,  হ্যামকো,  সাইফপাওয়ার ব্যাটারিসহ সকল প্রকার ব্যাটারি পাইকারি ও খুচরা মুল্যে পাওয়া যায়।সকল প্রকার এসি ও সোলার প্যানেল পাওয়া যায়।এম,ইব্রাহিম এন্ড কোং,৪৬ আপার যশোর রোড, খুলনা।মোবাইল: ০১৭১০-২৪০৭৮৫/০১৯৭০-২৪০৭৮৫★রিক্সা ও ভ্যানের ১নং চায়না ব্যাটারির একমাত্র পাইকারি বিক্রয় প্রতিষ্ঠান এম,ইব্রাহিম এন্ড সন্স।৪৭,আপার যশোর রোড,(সঙ্গিতার মোড়) খুলনা।মোবাঃ ০১৭১০-২৪০৭৮৫/ ০১৯৭০-২৪০৭৮৫/০১৭২১-৪২৮১৩৫।
খুলনার খবর
কুষ্টিয়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুলছাত্রী নিহত কুষ্টিয়ায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার সারাদেশে জমজমের পানি বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টদের দুদিনের ধর্মঘট স্থগিত খুলনাকে হারিয়ে প্লে অফে সিলেট দিঘলিয়া প্রেসক্লাব নির্বাচনে ‘সহ-সাধারণ সম্পাদক’ পদে এস,এম শামিম ৩রা ফেব্রুয়ারী খুলনায় ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ মিছিল নড়াইলে মাছের ঘেরে বিষ প্রয়োগ ; দশ লাখ টাকার ক্ষতি রূপসা উপজেলা আইন শৃঙ্খলা ও সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত রূপসায় আইন শৃঙ্খলা ও সমন্বয় কমিটির সভায় জুম কনফারেন্সে :এমপি সালাম মূর্শেদী দিঘলিয়া উপজেলায় কর্মরত প্রকৌশলীদের কর্মবিরতি ও মানববন্ধন পালিত কেশবপুরে বালতিতে রাখা পানিতে পড়ে শিশু কন্যার মৃত্যু সাগরদাঁড়ি মধুমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে “কৃষি মেলা” মাইকেল মধুসূদন দত্ত একজন নাট্যকার, বাংলা ভাষার সনেট ও অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক-ড.আহসান হাবীব খুলনায় যুবককে প্রকাশ্যে গুলি অভয়নগরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তিনশত বছরের পুরনো মাঘী পূর্নিমা উৎসব লোহাগড়ায় সেনাপ্রধানের পক্ষে অসহায় ও দুস্থদের মাঝে শীতবন্ত্র বিতরণ লোহাগড়ায় মায়ের পরকিয়ায় ভালো নেই শিশু আরিয়ান নড়াইলে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে কলেজ অধ্যক্ষের অফিসে এক নারী বাড়ছে চিনির দাম, ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর

মঙ্গলকোট ও বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নে জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে শেষ হলো দুর্গোৎসব

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮৬ বার শেয়ার হয়েছে

পরেশ দেবনাথ,কেশবপুর,যশোর // কেশবপুরের মঙ্গলকোট ও বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নে জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে শেষ হলো হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মিয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব। শনিবার (১- নভেম্বর) সন্ধ্যা বেলায় দেবী দুর্গার আমন্ত্রণ ও অধিবাসের মাধ্যমে অকালবোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবার দেবি এসেছেন গজে করে আর চলে গেলেন নৌকায় চড়ে। ঢাক-ঢোল আর কাঁসার বাদ্যে শুরু হয়েছিল দুর্গাপূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা। সরকারী সিদ্ধান্ত মেনে কেশবপুরে এই প্রথমবারের মত আলোকসজ্জা বিবর্জিত সবুজের সমারোহ এবং পরিবেশবান্ধব ছিল মণ্ডপগুলিতে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ও কেশবপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্যামল সরকারের ছিল কঠোর ভূমিকা। যশোর জেলা প্রশাসক, মোঃ তমিজুল ইসলাম খানসহ সফর সঙ্গীরা সোমবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা মন্দির পরিদর্শনকালে সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী আলোকসজ্জা বিহীন পূজার্চনা ও নিয়ম শৃঙ্খলার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

এ দু’টি ইউনিয়নের ৮ টি মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলকোট ইউনিয়নে, মঙ্গলকোট বাজার, মঙ্গলকোট চৌধূরী বাড়ি, কন্দর্পপূর ও পাথরা সার্বজনীন দুর্গা মন্দির। বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নে, বিদ্যানন্দকাটি, হাড়িয়াঘোপ ঘোষপাড়া, পরচক্রা ও বাউশলা পূর্ব দাস পাড়া সার্বজনীন দুর্গা মন্দির। মন্ডপগুলিতে বসানো হয়েছিল সিসি ক্যামেরা ও কঠোর নিরাপত্তা।

দেবীর এই আগমনকে ঘিরেই ব্যস্ত সময় পার করেছেন, সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরের ভাস্কর ও পুজারিরা।
মঙ্গলকোট ইউনিয়ন পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিশ্বনাথ হালদার জানান, ৪ টি মন্দিরে পূজার্চনায় কোনপ্রকার সমস্যার সৃষ্টি হয়নি। তা ছাড়া মন্ডপগুলিতে বসানো হয়েছিল সিসি ক্যামেরা ও কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিমা বিসর্জন দেওয়ার যথাসাধ্য চেষ্ঠা করেছি। সকালে ১১ টা পর্যন্ত যাত্রা মঙ্গল পড়ার জন্য মন্দিরগুলোতে ছিল উপছে পড়া ভীড়।

বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও কেশবপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি নন্দ দুলাল বসু জানান, বিদ্যানন্দকাটি, মঙ্গলকোট ইউনিয়ন-সহ উপজেলার ৯৩ টি মন্দিরে পূজার্চনায় কোনপ্রকার সমস্যার সৃষ্টি হয়নি। তা ছাড়া মন্ডপগুলিতে বসানো হয়েছিল সিসি ক্যামেরা ও কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। করোনার কারণে গত দুই বছর সীমিত পরিসরে উৎসব হলেও এবারের প্রস্তুতি বেশ জাঁকজমকপূর্ণ ও ভক্তদের আগমন ছিল পর্যাপ্ত। সকাল ১১ টা পর্যন্ত ছিল যাত্রা মঙ্গল পাঠ। বিকাল ৪ টা থেকে বিরতিহীনভাবে চলেছে সকলের জন্য খেলাধূলা, নাচ, গান কৌতুক ও পুরস্কার বিতরণ। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিমা বিসর্জন দিতে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি।

মঙ্গলকোট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের বিশ্বাস জানান, আমি সবকয়টি মন্ডপ পরিদর্শন করেছি, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপুজা সুষ্ঠু সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রত্যেক মন্দিরে আমার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে কম- বেশি অনুদান দিয়েছি। তাছাড়া কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম,এম, আরাফাত হোসেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আরিফুজ্জামানসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে নিয়েও পর্যবেক্ষণ করেছি।
বিদয়ানন্দকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আমজাদ হোসেন বলেন, আমার ইউনিয়নে শারদীয় দূর্গাপুজা সুষ্ঠু সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৫ অক্টোবর) প্রতিমা বিসর্জনের দিনে ভক্তদের মুখে মুখে ছিল, ‘মা তুমি আবার এস, আসছে বছর আবার হবে’।সব মিলিয়ে মঙ্গলকোট ও বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নে জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে শেষ হলো দুর্গোৎসব।

কেশবপুর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায় দুর্গা পুজা সুষ্ট শান্তিপুর্ণ ভাবে ও সরকারী সিদ্ধান্ত মেনে অনুষ্ঠিত হওয়ায় পুলিশ প্রশাসন মন্দির কমিটি সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কেশবপুর উপজেলা পুজা পরিষদের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও শুভ বিজয়ার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত। নিবন্ধন নাম্বার:...।মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।