1. info@www.khulnarkhobor.com : admin :
  2. khulnarkhobor24@gmail.com : Khulnar Khobor : Khulnar Khobor
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
★খুলনার খবরে আপনাদের স্বাগতম★এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি★আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন।০১৯২৫-৫৩৬৩৪০★আপনাদের কাছে কোন তথ্য থাকলে আমাদের জানাতে পারেন।যোগাযোগের ঠিকানা, ৪৭,আপার যশোর রোড, খুলনা।ই-মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।মোবাঃ ০১৭২১-৪২৮১৩৫, ০১৭১০-২৪০৭৮৫।★আমাদের  প্রতিনিধি হতে চাইলে যোগাযোগ করুন : ০১৯২৫-৫৩৬৩৪০/০১৭১০-২৪০৭৮৫।লুকাস,  ভলভো,  হ্যামকো,  সাইফপাওয়ার ব্যাটারিসহ সকল প্রকার ব্যাটারি পাইকারি ও খুচরা মুল্যে পাওয়া যায়।সকল প্রকার এসি ও সোলার প্যানেল পাওয়া যায়।এম,ইব্রাহিম এন্ড কোং,৪৬ আপার যশোর রোড, খুলনা।মোবাইল: ০১৭১০-২৪০৭৮৫/০১৯৭০-২৪০৭৮৫★রিক্সা ও ভ্যানের ১নং চায়না ব্যাটারির একমাত্র পাইকারি বিক্রয় প্রতিষ্ঠান এম,ইব্রাহিম এন্ড সন্স।৪৭,আপার যশোর রোড,(সঙ্গিতার মোড়) খুলনা।মোবাঃ ০১৭১০-২৪০৭৮৫/ ০১৯৭০-২৪০৭৮৫/০১৭২১-৪২৮১৩৫।
খুলনার খবর
কুষ্টিয়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুলছাত্রী নিহত কুষ্টিয়ায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার সারাদেশে জমজমের পানি বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টদের দুদিনের ধর্মঘট স্থগিত খুলনাকে হারিয়ে প্লে অফে সিলেট দিঘলিয়া প্রেসক্লাব নির্বাচনে ‘সহ-সাধারণ সম্পাদক’ পদে এস,এম শামিম ৩রা ফেব্রুয়ারী খুলনায় ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ মিছিল নড়াইলে মাছের ঘেরে বিষ প্রয়োগ ; দশ লাখ টাকার ক্ষতি রূপসা উপজেলা আইন শৃঙ্খলা ও সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত রূপসায় আইন শৃঙ্খলা ও সমন্বয় কমিটির সভায় জুম কনফারেন্সে :এমপি সালাম মূর্শেদী দিঘলিয়া উপজেলায় কর্মরত প্রকৌশলীদের কর্মবিরতি ও মানববন্ধন পালিত কেশবপুরে বালতিতে রাখা পানিতে পড়ে শিশু কন্যার মৃত্যু সাগরদাঁড়ি মধুমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে “কৃষি মেলা” মাইকেল মধুসূদন দত্ত একজন নাট্যকার, বাংলা ভাষার সনেট ও অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক-ড.আহসান হাবীব খুলনায় যুবককে প্রকাশ্যে গুলি অভয়নগরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তিনশত বছরের পুরনো মাঘী পূর্নিমা উৎসব লোহাগড়ায় সেনাপ্রধানের পক্ষে অসহায় ও দুস্থদের মাঝে শীতবন্ত্র বিতরণ লোহাগড়ায় মায়ের পরকিয়ায় ভালো নেই শিশু আরিয়ান নড়াইলে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে কলেজ অধ্যক্ষের অফিসে এক নারী বাড়ছে চিনির দাম, ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর

নড়াইলে আজ ছয় লেনের দৃষ্টিনন্দন মধুমতি সেতুর উদ্বোধন

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০২২
  • ১০৭ বার শেয়ার হয়েছে

মোঃ আলমগীর হোসেন, লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি // দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন, নড়াইলের লোহাগড়ার মধুমতি নদীর ওপর কালনা পয়েন্টে নির্মিত দেশের প্রথম ছয় লেনের দৃষ্টিনন্দন ‘মধুমতি সেতু’র উদ্বোধন হতে যাচ্ছে আগামীকাল ১০ অক্টোবর সোমবার। উদ্বোধনের দিন থেকেই সেতুতে চলবে সব ধরনের যানবাহন।

সাত বছর ধরে মধুমতি সেতু নির্মান শেষে আগামীকাল সোমবার উদ্বোধনের ঘোষনায় মধুমতি পাড়ের মানুষের মধ্যে আনন্দ উল্লাসের শেষ নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা ১২ টায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সেতু উদ্বোধন করবেন। সেতুর পশ্চিমপ্রান্ত লোহাগড়ার অংশে নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্য সচিব ড.আহম্মদ কায়কাউসের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থাকবেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী, সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত, জাপানের রাষ্ট্রদুত, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি ড. খন্দকার মুহিত উদ্দিন,নড়াইল-১ আসনের এমপি কবিরুল হক মুক্তি, নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফি বিন মোর্তুজা, নড়াইলের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রæভমেন্ট প্রকল্পের পরিচালক (পিডি) শ্যামল ভট্টাচার্য, সওজ নড়াইলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আশরাফুজ্জামান, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.আজগর আলীসহ উর্দ্ধতন সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নড়াইল, লোহাগড়া, গোপালগঞ্জ, কাশিয়ানীসহ আশে পাশের জেলা-উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।বহুল কাঙ্খিত মধুমতি সেতু নির্মানের মাধ্যমে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্তত ১০ জেলার মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ লাঘব হতে যাচ্ছে। এ সেতুর পূর্ব পাড়ে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা এবং পশ্চিম পাড়ে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা।

বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ২০০৮ সালের ১৯ ডিসেম্বর নড়াইলের ভিক্টোরিয়া কলেজ মাঠে এক নির্বাচনী জনসভায় এ সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রæতি দিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে সেতুর কাজের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেছিলেন।

গত ২৫ জুন পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর যশোর ও নড়াইলসহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের কাছে মধুমতি নদীর কালনা পয়েন্টে মধুমতি সেতুর প্রয়োজনীয়তা বহু গুণ বেড়ে যায়। পদ্মা সেতু পার হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের প্রবেশদ্বার হবে কালনা পয়েন্টে মধুমতি সেতু। তাই পদ্মা সেতুর সুফল পেতে মধুমতী নদীর এ সেতুটি নির্মাণ জরুরী হয়ে পড়েছিল। গত ২২ সেপ্টেম্বর সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সেতুটি পরিদর্শন করেন।সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (জাইকা) অর্থায়নে এ সেতু নির্মাণ হয়েছে।

প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, সেতুর মাঝখানে বসানো হয়েছে ১৫০ মিটার দীর্ঘ স্টিলের স্প্যান। নেলসন লোস আর্চ টাইপের (ধনুকের মতো বাঁকা) এ স্প্যানটি তৈরি হয়েছে ভিয়েতনামে। ওই স্প্যানের উভয় পাশের অন্য স্প্যানগুলো পিসি গার্ডারের (কংক্রিট)। ছয় লেনের এ সেতু হবে এশিয়ান হাইওয়ের অংশ। চারটি মূল লেনে দ্রুতগতির ও দুটি লেনে কম গতির যানবাহন চলাচল করবে। সেতুর দৈর্ঘ্য ৬৯০ মিটার ও প্রস্থ ২৭ দশমিক ১০ মিটার। উভয় পাশে সংযোগ সড়ক ৪ দশমিক ২৭৩ কিলোমিটার, যার প্রস্থ ৩০ দশমিক ৫০ মিটার। সেতু নির্মাণে মোট ব্যয় হবে ৯৫৯ দশমিক ৮৫ কোটি টাকা।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা আরো জানিয়েছেন, পদ্মা সেতু চার লেনের হলেও দেশের প্রথম ছয় লেনের সেতু মধুমতি। পদ্মা সেতুর পাইলক্যাপ পানির ওপর পর্যন্ত। কিন্তু এ সেতুর পাইলক্যাপ পানির নিচে মাটির ভেতরে। তাই নৌযান চলাচল সমস্যা হবে না, পলি জমবে না এবং নদীর নাব্যতা কম হলেও বাধাগ্রস্ত হবে না।
সওজ ও পরিবহন সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, এ সেতু চালু হলে বেনাপোল স্থলবন্দর থেকে যশোর হয়ে নড়াইলে যাতায়াতকারী পরিবহন মাগুরা-ফরিদপুর হয়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া যাতায়াতের পরিবর্তে মধুমতি সেতু হয়ে পদ্মা সেতু দিয়ে যাতায়াত করতে পারবে। এতে বেনাপোল-ঢাকা ও যশোর-ঢাকার দূরত্ব ১১৩ কিলোমিটার, খুলনা-ঢাকার দূরত্ব ১২১ কিলোমিটার এবং নড়াইল-ঢাকার দূরত্ব ১৮১ কিলোমিটার কমবে। একইভাবে ঢাকার সঙ্গে শিল্প ও বাণিজ্যিক শহর নওয়াপাড়া ও মোংলা বন্দর ও সাতক্ষীরার দূরত্বও কমে যাবে। এশিয়ান হাইওয়েতে থাকা এই সেতুটি সড়ক যোগাযোগের ক্ষেত্রে সিলেটের তামাবিল হয়ে ঢাকা, বেনাপোল, কলকাতা পর্যন্ত সরাসরি ভূমিকাও রাখবে।

মধুমতি সেতুর টোল নির্ধারণ:
মধুমতি সেতু পারাপারের জন্য বড় ট্রেইলার ৫৬৫ টাকা, তিন বা ততোধিক এক্সসেল বিশিষ্ট ট্রাক ৪৫০ টাকা, দুই এক্সসেল বিশিষ্ট মাঝারি ট্রাক ২২৫, ছোট ট্রাক ১৭০ টাকা, কৃষিকাজে ব্যবহ্নত পাওয়ার ট্রিলার ও ট্রাক্টর ১৩৫ টাকা, বড় বাসের ক্ষেত্রে ২০৫ টাকা, মিনিবাস বা কোস্টার ১১৫ টাকা, মাইক্রোবাস, পিকআপ, কনভারশনকৃত জিপ ও রে-কার ৯০ টাকা, প্রাইভেট কার ৫৫ টাকা, অটোটেম্পো, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, অটোভ্যান ও ব্যাটারিচালিত তিন চাকার যান ২৫ টাকা, মোটরসাইকেল ১০ টাকা এবং রিকশা, ভ্যান ও বাইসাইকেলের ক্ষেত্রে পাঁচ টাকা টোল নির্ধারণ করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত। নিবন্ধন নাম্বার:...।মেইল: khulnarkhobor24@gmail.com।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।