1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:২৬ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল খুলনার প্রিয়াম ফিশ এক্সপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল ৭৭ প্রতিষ্ঠান নড়াইলে সাংবাদিকের পরিবারের উপর হামলা ও প্রান নাশের হুমকির অভিযোগ শার্শায় পাট পচনের জন্য বৃষ্টির হাহাকার; কৃষকের মনে সংশয় লোহাগড়ায় পরিছন্ন ও সৌন্দর্যবর্ধন কর্মসূচির উদ্বোধন শার্শায় যুবককে ছুরিকাঘাত করে টাকা ছিনতাই কেশবপুরে পরিচ্ছন্ন পৌরসভা গড়তে শহরের হোটেল-সেলুন-চায়ের-চায়ের দোকানে ডাস্টবিন প্রদান পাইকগাছায় বোনদের জমি জোর পূর্বক ভোগদখল করেছে ভাইয়েরা তেরখাদায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ কেশবপুরের গড়ভাঙ্গা ভায়া দূর্বাডাঙ্গা সড়কের সংস্কার কাজ নয় মাস ধরে বন্ধ,ঠিকাদার উধাও যশোরে মাকে হত্যার পর মরদেহ মাটিতে পুঁতে রাখার অভিযোগ মোংলায় টাকা দিয়ে বৈধভাবে জমি কিনে বিপাকে পড়েছেন কয়েকজন ক্রেতা তেরখাদায় আব্দুস সালাম মূর্শেদী ফকিরহাটে যাত্রীবাহী দুটি বাসের সংঘর্ষ; নিহত ১, আহত কমপক্ষে ২০ কেশবপুরে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করলেন এমপি আজিজুল ইসলাম লোহাগড়ায় কেন্দ্রীয় যুবদলের নতুন কমিটিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে যুবদলের আনন্দ মিছিল খুলনায় জমিসংক্রান্ত বিরোধে ভাতিজার হাতে চাচা নিহত,আহত ২ কেশবপুরে ১৮৫ জন শিশুদের মাঝে স্কুল ব্যাগ,বেডসীড এবং মশারী বিতরণ দিঘলিয়া সন্তান ও ঢাকা আশুলিয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি কামাল হোসেন এর পিতার মৃত্যু অবশেষে উন্মক্ত হলো কপিলমুনি ধান্য চত্বর

খুলনার কয়রার চলছে ঐতিহ্যবাহী মধু মেলা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ২৭১ বার শেয়ার হয়েছে

কয়রা প্রতিনিধি // খুলনার কয়রায় মহা ধুমধামের শুরু হয়েছে ঐতিহাসিক বনবিবি তথা ”মুধো মাঝি”র মেলা।গত ১৬ জানুয়ারী সোমবার খুলনার কয়রার দক্ষিণ বেদকাশীর চরামুখা গ্রামে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো মহা ধুমধামের সাথে শুরু হয়েছে প্রায় শত বর্ষের গৌরবময় ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে বুকে ধারণ করে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের স্মৃতি বিজড়িত কপোতাক্ষ নদের তীরে উদযাপিত হচ্ছে ঐতিহাসিক ’বনবিবি’র মেলা।যা ”মুধো মাঝি”র মেলা নামে পরিচিত।

কত সাল থেকে যে এ মেলা শুরু হয়েছিলো নির্দিষ্ট করে কেউ বলতে পারেন না।তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়,ব্রিটিশ আমল থেকে প্রতি বাংলা বছরের ’১লা মাঘে’এ মেলা উদযাপিত হয়। সেই সময়ে চরামুখা গ্রামে মহাদেব মাঝি ও সহাদেব মাঝি নামে দুইভাই বাস করতেন। তারা কাঠ কাটতে জঙ্গলে যেতেন। তখন স্বপ্ন প্রাপ্ত হয়ে মহাদেব মাঝি ছোট ভাই সহাদেব মাঝিকে সাথে নিয়ে স্বল্প পরিসরে বনবিবি পূজা শুরু করেন। পরবর্তীতে ঐ এলাকার হাজোতিরা ঐ পূজায় এসে পূজা অর্চনা করতেন ও হাজোত দিতেন বিধায় পূজাটি মেলায় রূপ নেয়। পূর্বে মেলাটি ৭ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত উদযাপিত হতো। কিন্তু কালের পরিবর্তনে এখন মেলাটি ১বা ২দিন ধরে উদযাপিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এবছরও মেলাটি ২ দিন ধরে উদযাপিত হচ্ছে।কালক্রমে প্রয়াতঃ মহাদেব মাঝির নামেই এক সময় মেলার নাম হয় ’মুধো মাঝি’র মেলা।

আজও মেলাটি ’মুধো মাঝি’র মেলা নামে সমোধিক পরিচিত।মেলাটি ভোর বেলা শুরু হয়ে গভীর রাত পর্যন্ত চলে।মেলা ঘুরে দেখা যায় এ উপলক্ষে এলাকা ছাড়াও বিভিন্ন জেলা অঞ্চলের ব্যাবসায়ী ক্রেতা-বিক্রেতা ও দর্শনার্থীদের সমবেত হতে দেখা গেছে।মেলায় কসমেটিক সামগ্রী,পোশাক,খেলনা, বই, বাঁশের তৈরী শিল্প সামগ্রী, গৃহাস্থলীর বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী, শাক-সব্জী,বিভিন্ন ধরনের ফল,ভাঝা, চটপটি,বিভিন্ন ধরনের মিষ্টির দোকান,বিশেষ করে মাটির তৈরী বিভিন্ন ধরনের হাঁড়ী-পাতিল ও বিভিন্ন ধরনের খেলনা মেলার শোভা বর্ধন করে।সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত দর্শনার্থীর ভীড়ে বিভিন্ন ধরনের খোশ গল্প জমে উঠেছে।ছোট ছোট ছেলে- মেয়ের ছোটাছুটি,বাঁশির সুর,মাইকের শব্দ,চোরকি ঘোরানো ও নাগোর দোলার কোঁকানি ও জন কোলাহলে মন মেতে ওঠে।

বিনোদন হিসেবে মেলায় আয়োজন ছিলো ৮ দলীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সহ বিভিন্ন ধরনের খেলা-ধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্থানীয় ও অতিথী শিল্পীদের নাচে-গানে মুখরিত হয়ে ওঠে মেলার পরিবেশ।মহাদেব মাঝি ও সাহাদেব মাঝি মারা যাওয়ার পর তারই ভ্রাতুস্পুত্র ভোলানাথ মাঝি অদ্যাবধি সুনামের সাথে মেলাটি পরিচালনা করে আসছেন।

মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি ইউপি সদস্য মোজাফ্ফর আহমেদ বলেন, মেলাটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য আয়োজক কমিটির স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী,স্থানীয় প্রশাসন ও কয়রা থানা প্রশাসনিক বাহিনী সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।