1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ১২:৪০ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
আতঙ্কিত এক জনপদের নাম লোহাগড়া  মোরেলগঞ্জে কৃষকদের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন বিতরণ করলেন এমপি বদিউজ্জামান সোহাগ কেশবপুরের আলতাপোল মহাশ্মশান পরিচালনা কমিটি গঠন  নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ ভিত্তিহীন-মাশরাফী রামপালে গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত লোহাগড়ায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে ২ প্রার্থীকে জরিমানা  ২০ মে কেশবপুরের সীমান্তবর্তী চুকনগর গণহত্যা দিবস বাগেরহাটে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা সংসদ ভবন এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী খুন মোংলায় আচরণবিধি লঙ্ঘনে তিন প্রার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা বটিয়াঘাটা উপজেলায় পানিতে ডুবে নবম শ্রেণীর ছাত্রের মৃত্যু কেশবপুরে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী আলমগীরের স্ত্রী ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ গ্রেফতার  ঢাকার ধোলাইখালে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট  গাজীরহাটে সাংবাদিকের বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি বাগেরহাটে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, প্রতিবাদ করায় পিতাসহ ৪ জন আহত খুলনা অনলাইন প্রেসক্লাব এর বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত ধান নি‌য়ে বা‌ড়ি ফেরা হ‌লো না কয়রার দুই শ্রমি‌কের তালায় ট্রাক উল্টে খাদে; নিহত ২, আহত ১০ ২১ মে মঙ্গলবার ১৫৭ উপজেলায় সাধারণ ছুটি ঘোষনা

লোহাগড়ায় সংখ্যালঘু পরিবারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ভিটে ছাড়ার অভিযোগে মানববন্ধন

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৩২ বার শেয়ার হয়েছে

মোঃ আলমগীর হোসেন,নড়াইল প্রতিনিধি || নড়াইলের লোহাগড়ায় একটি পরিবারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ভিটে ছাড়ার অভিযোগ এনে এবং এ ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন।

রোববার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে জেলার লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর রাধাগোবিন্দ সেবাশ্রমের সামনে নিপীড়নের বিরুদ্ধে নড়াইলের ব্যানারে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি আ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, নড়াইল পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মলয় কুন্ডু, নিপীড়নের বিরুদ্ধে নড়াইল-এর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী বসিরুল হক, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মলয় নন্দী প্রমুখ।

জানা গেছে, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের ব্রাহ্মণডাঙ্গা গ্রামের কৃষক পরিতোষ দাস (৬০), স্ত্রী গীতা দাস (৪৫) ও শ্বাশুড়ী কমলা দাসী (১১০) ২৭মার্চ ভোরে সবার অজ্ঞাতে এলাকা ছেলে চেলে গেছে। যাওয়ার আগে তিনটা ছাগল ও তিনটা গরু একই গ্রামের আরফিন শেখের ছেলে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মিলন শেখের কাছে রেখে যায়।

পরে ৪ এপ্রিল নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নূরুজ্জামান নূরনবীর পূত্র হুসাইন মোল্যা ও গোলাম মোহাম্মদের পূত্র জহির মোল্যা পরিতোষ দাসের কাছে ৩০ হাজার টাকা পাবে এই কথা বলে মিলনের কাছ থেকে গরু ৩টি জোরপূর্বক নিয়ে গিয়ে বিক্রি করে দেয়। বিষয়টি বিভিন্ন মহলে জানাজানি হয়ে গেলে জহির ও হুসাইন গরু ফেরত দিয়ে যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্রাঙ্গনডাঙ্গা গ্রামের একাধিক ব্যক্তি জানান, স্থানীয় কায়েম আলীর ছেলে বেনজীরের কাছ থেকে একটি মেমোরি কার্ডে পরিতোষ দাসের স্ত্রী দু’সন্তানের জননী গীতা দাসের অশ্লীল ভিডিও পাওয়া যায়। এ ছবি নিয়ে হুসাইন ও জহির বিভিন্ন সময় তাকে ব্লাক মেইল, টাকা আদায় ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল।

স্থানীয় দফাদার আবু আবদুল্লাহ জানান, পরিতোষ দাস বাড়ি ছেড়ে চলে যাবার পূর্বে স্থানীয় কয়েকজন মানুষ এ পরিবারকে বিভিন্ন হুমকি-ধমকি ও ব্লাক মেইল করে আসছিল বলে জানান।জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মিলন শেখ সাংবাদিকেদের বলেন, হুসাইন, জহির ও তাদের লোকজন আমার কাছ থেকে জোরপূর্বক গরু নিয়ে যায়। পরে অবশ্য বিভিন্ন চাপে ফেরত দিয়ে গেছে। ভূক্তভোগিদের সহযোগিতা পেলে এই দুস্কৃতিকারীদের শায়েস্তা করতে পারতাম। কিন্তু তারা সংখ্যালঘু বিধায় ভয়ে তারা কিছু করতে পারছেনা। তিনি আরও বলেন, শুনেছি পরিতোষ দাস, স্ত্রী ও মা এখন ছেলে পিযুস দাসের কাছে ঢাকায় রয়েছে।এ বিষয়ে পরিতোষকে ফোন করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত হুসাইনের পিতা নূরুজ্জামান নূরনবী সাংবাদিকদের কাছে ফোনে ছেলের দোষ অস্বীকার করে বলেন, এটা গ্রাম্য দলাদলি ও ভায়ে ভায়ের দ্বন্দ্ব। তাছাড়া গীতা দাসের চরিত্র নষ্ট এবং অনেকের কাছে টাকার দেনা রয়েছে। হুসাইন কোথায়, তার ফোন নম্বর দেন এ প্রশ্ন করলে বলেন, তাকে বাড়ি থেকে চলে যেতে বলেছি। জহিরের পিতা গোলাম মোহাম্মদ ও একই ধরনের মন্তব্য করেন।

নোয়াগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান জোসেফ মুন্সি বলেন, ভূক্তভোগিরা কারো কাছে কোনো অভিযোগে করেনি। এটা হচ্ছে গ্রাম্য রাজনীতি। আপনারা পুলিশ প্রশাসনের সাথে কথা বলেন, পরিতোষ দাসের সাথে পুলিশ প্রশাসনের কথা হয়েছে। এই বলে ফোন রেখে দেন।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) নাসির উদ্দিন জানান, প্রাথমিকভাবে দু’ভায়ের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধের বিষয়টি জানা গেছে। পরিতোষ বাড়ি ছেড়ে চলে যাবার পর এবং জোরপূর্বক গরু নিয়ে যাবার পর অশ্লীল ছবিসহ সামগ্রিক বিষয়টি সামনে এসেছে। এ ব্যাপারে মামলা করতে পরিতোষ ও তার পরিবারের সাথে কথা ফোনে অনেক বার কথা বলেছি। তারা কোন অভিযোগ করবে না বলে জানিয়েছে। তারা এখন ছেলের কাছে ঢাকায় রয়েছে। তবে অভিযুক্তরা পালিয়েছে বলে জানান।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।