1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০২:২৫ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
দিঘলিয়ায় নির্মিত হচ্ছে মিনি স্টডিয়াম; পাথরের পরিবর্তে ইটের খোয়া ও ধূলো বালু শার্শা উপজেলার সরকারি অফিস গুলোতে বিদ‍্যুৎ অপচয় হচ্ছে দেদারসে লোহাগড়ায় মধুমতী নদী থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার লোহাগড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৭ মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত তেরখাদায় “অন্ধকার থেকে আলোর পথে” নাটকের শুভমুক্তি মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও হত্যার হুমকির প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন পাইকগাছায় রেমালে লন্ডভন্ড ইটের সলিং এর রাস্তা অবশেষে স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার পাইকগাছায় প্রতিদিনের কথা’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন সাবেক ছাত্রলীগ নেতার কেশবপুর থানা পুলিশের অভিযানে ১ সাজাপ্রাপ্ত আসামিসহ ৮ জন গ্রেফতার মাও: সাখাওয়াত হোসেনের সুস্থতা কামনায় ইসলামী আন্দোলন খুলনা মহানগর নেতৃবৃন্দ দিঘলিয়ায় রেকর্ডীয় ভিপি জমিতে পাকা বাড়ি; বছর পেরিয়ে গেলেও উদ্ধার করতে পারেনি ভূমি অফিস ঝিকরগাছায় চুরি করতে এসে প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যা ও মেয়ে আহত জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল খুলনার প্রিয়াম ফিশ এক্সপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল ৭৭ প্রতিষ্ঠান নড়াইলে সাংবাদিকের পরিবারের উপর হামলা ও প্রান নাশের হুমকির অভিযোগ শার্শায় পাট পচনের জন্য বৃষ্টির হাহাকার; কৃষকের মনে সংশয় লোহাগড়ায় পরিছন্ন ও সৌন্দর্যবর্ধন কর্মসূচির উদ্বোধন শার্শায় যুবককে ছুরিকাঘাত করে টাকা ছিনতাই

কখনও নেতার ঘনিষ্ঠজন কখনও সরকারি কর্মকর্তা সেজে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১২ মার্চ, ২০২৪
  • ৪৪ বার শেয়ার হয়েছে

অতনু চৌধুরী(রাজু)বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি || উচ্চ বেতনে সরকারি ও ব্যাংক প্রতিষ্ঠানে লোভনীয় চাকরি দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিয়ে প্রতারণা করতেন তারা। পরিচয় দিতেন কখনো ব্যাংক কর্মকর্তা,কখনো কাস্টমস কর্মকর্তা আবার কখনো প্রভাবশালী নেতার নিজস্ব লোক হিসেবে। ঢাকায় গুলশানে অভিজাত এলাকায় অফিস,দামী গাড়ি, সরকারি দলের বিভিন্ন নেতা ও সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে ছবি তুলে সেগুলো ফেসবুকে আপলোড দিয়ে বিশ্বাস অর্জন করতে চাকরিপ্রার্থীদের। বাগেরহাটের ফকিরহাট মডেল থানায় এমন দুই প্রতারকের নামে লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

অভিযুক্তরা হলেন একই উপজেলার ৫ নং বাহিরদিয়া মানসা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড সাতবাড়িয়া এলাকার বাসিন্দা,শেখ মাহমুদুল হাসান (৩০) ও শেখ টিপু (৩২)।

ফকিরহাট মডেল থানায় মামলার অভিযোগকারী কামরুজ্জামান সুজন জানান,প্রতারক মাহমুদুল হাসান নিজেকে কাস্টমস কর্মকর্তা ও শেখ পরিবারের ঘনিষ্ঠ জন পরিচয় দিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এবং কর্মসংস্থান ব্যাংকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়। এরমধ্যে কামরুজ্জামান সুজনের কাছ থেকে মাহমুদুল হাসান ২০২৩ সালের এপ্রিল মাসে ব্যাংকের মাধ্যমে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং নগদ ৫৫ হাজার টাকা নেন।অপরদিকে শেখ টিপু ২ লাখ ৫০ হাজার নগদ নিয়েছে। শেখ পরিবারের বিভিন্ন সদস্যদের সাথে প্রতারকদ্বয় ছবি তুলে সে নিজেকে শেখ পরিবারের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচয় দিয়ে মূলত তার বিশ্বাস অর্জন করেন। চাকরির প্রদানে ব্যর্থ হলে টাকা ফেরত চাইলে তারা নানা টাল বাহানা ও প্রতি নিয়ত হয়রানি করছে বলে উল্লেখ করে ভিকটিম অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, শেখ মাহমুদুল হাসান নিজেকে কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয় দিলেও সে মূলত প্রতারক। সম্প্রতি কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয়ে এক তরুনীকে বিয়ে করতে গেলে, মেয়ের পরিবারের জেরার মুখে পালাতে বাধ্য হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অভিযুক্তদের ব্যাপারে এলাকাবাসীর নানা অভিযোগ রয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একজন ব্যক্তি জানান,মাহমুদ ও হারুন (শেখ টিপু) রাতারাতি শূন্য থেকে কোটিপতি বনে গিয়েছে। তিনি এখন ২৫ লাখ টাকা দামি গাড়িতে চড়েন,গড়েছেন বিল্ডিং,অভিজাত পাঁচতারা হোটেলে এদের নিয়মিত যাতায়াত রয়েছে। বেকার এই দুই যুবকের আয়ের উৎস কেউ জানেনা।

তিনি আরও জানান,মাহমুদের পিতা ছোট বেলায় মারা গিয়েছে অনেক দূর্দশা কষ্টের মাধ্যমে বড় হয়েছে। কিন্তু বিগত কয়েক বছরে সে এলাকার অন্যতম ধনাঢ্য ব্যক্তিতে পরিনত হয়েছে। অপর অভিযুক্ত হারুন ওরফে শেখ টিপুর ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন,হারুন (শেখ টিপু)এর বাবা গত ১ বছর আগে মারা গিয়েছে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত হারুনের বাবা ঢাকায় সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করতেন, বর্তমানে তাদের একাধিক ব্যবসা রয়েছে।ছোটবেলা থেকে ওদের দুই ভাইকে অনেক কষ্ট করে বড় করেছেন,হারুন(শেখ টিপু)একসময় কেয়ারটেকার ও পরে ড্রাইভার হিসেবে চাকরি করেছে এতটুকু জানি। তিনি আরোও জানান,মাহমুদ ও হারুন অভিজাত পরিবারের সন্তান না হলেও কোনো অদৃশ্য কারণে কোটিপতি বনে গিয়েছে। এদের ব্যাপারে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তদের দাবি করেন এই ব্যক্তি।

এ বিষয়ে ফকিরহাট মডেল থানার এস আই মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, অভিযোগটির বিষয়ে তদন্ত চলছে এবং তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।