1. info@www.khulnarkhobor.com : khulnarkhobor :
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:০৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি/বিজ্ঞাপন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com    বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৪৭,আপার যশোর রোড (সঙ্গীতা হোটেল ভবন) নীচতলা,খুলনা-৯১০০।ফোন:০১৭১০-২৪০৭৮৫,০১৭২১-৪২৮১৩৫। মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:- ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
খুলনার খবর
জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল খুলনার প্রিয়াম ফিশ এক্সপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় রপ্তানি ট্রফি পেল ৭৭ প্রতিষ্ঠান নড়াইলে সাংবাদিকের পরিবারের উপর হামলা ও প্রান নাশের হুমকির অভিযোগ শার্শায় পাট পচনের জন্য বৃষ্টির হাহাকার; কৃষকের মনে সংশয় লোহাগড়ায় পরিছন্ন ও সৌন্দর্যবর্ধন কর্মসূচির উদ্বোধন শার্শায় যুবককে ছুরিকাঘাত করে টাকা ছিনতাই কেশবপুরে পরিচ্ছন্ন পৌরসভা গড়তে শহরের হোটেল-সেলুন-চায়ের-চায়ের দোকানে ডাস্টবিন প্রদান পাইকগাছায় বোনদের জমি জোর পূর্বক ভোগদখল করেছে ভাইয়েরা তেরখাদায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ কেশবপুরের গড়ভাঙ্গা ভায়া দূর্বাডাঙ্গা সড়কের সংস্কার কাজ নয় মাস ধরে বন্ধ,ঠিকাদার উধাও যশোরে মাকে হত্যার পর মরদেহ মাটিতে পুঁতে রাখার অভিযোগ মোংলায় টাকা দিয়ে বৈধভাবে জমি কিনে বিপাকে পড়েছেন কয়েকজন ক্রেতা তেরখাদায় আব্দুস সালাম মূর্শেদী ফকিরহাটে যাত্রীবাহী দুটি বাসের সংঘর্ষ; নিহত ১, আহত কমপক্ষে ২০ কেশবপুরে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করলেন এমপি আজিজুল ইসলাম লোহাগড়ায় কেন্দ্রীয় যুবদলের নতুন কমিটিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে যুবদলের আনন্দ মিছিল খুলনায় জমিসংক্রান্ত বিরোধে ভাতিজার হাতে চাচা নিহত,আহত ২ কেশবপুরে ১৮৫ জন শিশুদের মাঝে স্কুল ব্যাগ,বেডসীড এবং মশারী বিতরণ দিঘলিয়া সন্তান ও ঢাকা আশুলিয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি কামাল হোসেন এর পিতার মৃত্যু অবশেষে উন্মক্ত হলো কপিলমুনি ধান্য চত্বর

মোংলায় শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে আম-কাঁঠাল’সহ বিভিন্ন ফলের বাজার

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১ জুলাই, ২০২৪
  • ১১৯ বার শেয়ার হয়েছে

অতনু চৌধুরী(রাজু)বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি ||
বাগেরহাটের মোংলায় শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে আম, কাঁঠাল’সহ বিভিন্ন ফলের বাজার। এবং প্রতিদিনই ক্রেতা বিক্রেতাদের আনাগোনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে মোংলা উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার। এবং বিভিন্ন জায়গা থেকে আম, কাঁঠাল’সহ বিভিন্ন ফল ক্রয় করে বিক্রি করতে আসছেন হাট বাজার’সহ গ্রাম অঞ্চলে। কেউ নিজেদের উৎপাদিত আম, কাঁঠাল’সহ বিভিন্ন ফল নিয়ে বাজার ও গ্রাম অঞ্চলে আসছেন, আবার কেউ বিভিন্ন স্থান থেকে খুচরা ক্রয় করে পাইকারী বিক্রি করতে আসছেন।

মোংলা উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারের সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সারি – সারি অটোরিক্সা, ভ্যানগাড়ি ও ভটভটিতে সুন্দর করে সাজানো হয়েছে হাজার হাজার কাঁঠাল’সহ হরেক রকমের ফল। এবং ছোট-বড় মাঝারি সব সাইজের কাঁঠালে ভরে গেছে মোংলা উপজেলার প্রতিটা হাট বাজার।

ক্রেতা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতিবছরের ন্যায় এ বছর আম ও কাঁঠালের দাম অন্যান্য ফলের দামের চেয়ে একটু বেশি।

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের আন্ধারিয়া গ্রামের হানিফা শেখ নামের এক আম ক্রেতা বলেন, সব জাতের আমই বাজারে এখন আসছে। কিন্তু মানুষের চাহিদা অনুযায়ী তো কেউ কিনতে পারছে না। এই আমার কথাই ধরুন, আমি যেখানে পাঁচ কেজি আম না কিনলে আমার পরিবারের হয় না, সেখানে আমাকে দুই কেজি কিনতে হচ্ছে।মানে আমার চাহিদার অর্ধেকও পূরণ হচ্ছে না। আমের দাম যদি ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজির মধ্যে রাখা যেতো তাহলে আর এই সাধ ও সাধ্যের সমন্বয়হীনতাটা হতো না।

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের দওেরমেঠ গ্রামের অপূর্ব চৌধুরী নামের এক কাঁঠাল ও আম ক্রেতারা বলেন, প্রতি বছরের চেয়ে এবার প্রতিটা জিনিসের দাম একটু বেশি আর গত বছর যা কিনেছি ১০০টাকা তা এ বছর ২০০ থেকে ২৫০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এবং সবকিছুতে যেভাবে দাম বাড়ছে তাতে আর কিছুই খাওয়া যাবে না। আমাদের দেশের কাঁঠাল ও আম আমরাই কিনে খেতে হিমশিম খাই। অদূর ভবিষ্যতে ইলিশের মতো আমও দুর্লভ হয়ে যায় কি না ভেবে দেখার সময় এসেছে। এক কেজি আমের যদি এতো দাম হয় তাহলে মানুষ কিনবে কীভাবে।

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের সুশান্ত মন্ডল (নায়েব) নামের এক কাঁঠাল ও আম বিক্রেতা বলেন,
আমরা যে দামে আম ও কাঁঠাল কিনে আনি তার চেয়ে অল্প কিছু বেশি লাভ করেই বিক্রি করে দেই। এই আম ও কাঁঠাল নষ্ট হয় তাতে লাভের পরিমাণ কিছুটা কমে আসে। আমাদের হাতে তো দাম বাড়ানো বা কমানোর কিছু নেই।

এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন,আম ও কাঁঠাল তো আমাদেরই দেশের ফল। এরপরেও বাজারে গতবারের তুলনায় দামটা একটু বেশি। এবং গাড়ি ভাড়া ও মধ্যস্থতাভোগী দালাল চক্রের কারণে আমাদের লাভ করা মুস্কিল হয়ে পড়েছে। তবে দাম বেশি হলেও ক্রেতার অভাব নেই।

শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2022 KhulnarKhobor.com মেইল:khulnarkhobor24@gmail.com।জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা আইনে তথ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধন আবেদিত।স্মারক নম্বর:-  ০৫.৪৪.৪৭০০.০২২.১৮.২৪২.২২-১২১।এই নিউজ পোর্টালের কোন লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।